মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C

আনোয়ারা বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ

শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের নাম               

আনোয়ারা বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ

সংক্ষিপ্ত বর্ণনা                        

আনোয়ারা কলেজ দক্ষিণ চট্টগ্রাম তথা চট্টলার একটি ঐতিহ্যবাহী শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। ১৯৭২ সালের ৬ আগষ্টের এক ঐতিহাসিক শুভ মুহুর্ত অত্র কলেজের প্রতিষ্ঠালগ্ন। প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে অদ্যাবধি এ কলেজ আনোয়ারা পটিয়া, চন্দনাইশ, সাতকানিয়া, ও পশ্চিম বাঁশখালীর উপকূলীয় অঞ্চলসহ দেশের এক বৃহত্তর অংশের ছাত্র ছাত্রীদেরকে উচ্চ মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষার আলোক বর্তিকা পৌছে দিচ্ছে। উচ্চ মাধ্যমিক শ্রেণীতে বিজ্ঞান, মানবিক ও ব্যবসায় শিক্ষা শাখা ডিগ্রি পর্যায়ে বি.এ, বি.এস.এস ও বি.বি.এস (পাস) এবং সণাতক (সম্মান) কোর্সে হিসাব বিজ্ঞান, ব্যবস্থাপনা এবং ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিষয় চালু রয়েছে। অত্র কলেজের সম্মানিত শিক্ষক-শিক্ষিকামন্ডলী অত্যমত্ম নিষ্ঠা ও দক্ষতার সাথে পাঠদান করে যাচ্ছেন।

প্রতিষ্ঠাকাল

০৬/০৮/১৯৭২ ইংরেজী

ইতিহাস

ভারত উপমহাদেশের আধ্যাত্বিক জগতের উজ্জ্বল নক্ষত্র হযরত শাহ মোহছেন আউলিয়া (রাহঃ), হযরত শাহ আলী রেজা কানু (শাহঃ), হযরত শাহ আবদুল কুদ্দুছ (রাহঃ), হযরত শাহ মিয়া হাজী দৌলত (রাহঃ) প্রমুখ পীর আউলিয়ার স্মৃতি বিজড়িত পূণ্যভূমি, কর্ণফুলী ও শংখ নদী বিধৌত বঙ্গোপসাগরের উপকূলবেষ্টিত প্রায় সাড়ে চার লক্ষ জন অধ্যুষিত অবহেলিত অত্র জনপদে জ্ঞানের দীপশিখা প্রজ্জ্বলনের মানসে স্বাধীনতাত্তোর ১৯৭২ সালে এক শুভক্ষণে চার চার বার নির্বাচিত  মাননীয় জাতীয় সংসদ সদস্য জনাব আলহাজ্ব আখতারম্নজ্জামান চৌধুরী বাবু এম.পি এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ ও জাতি-ধর্ম-বর্ন নির্বিশেষে সর্বসত্মরের জনগনের সহযোগিতায় উপজেলার প্রাণকেন্দ্রে অত্র কলেজটি প্রতিষ্ঠা করেন। জন্মলগ্ন হতে অদ্যাবধি কলেজটি শিক্ষা বিসত্মারে ব্যাপক আলোড়ন সৃষ্টি করে চলেছে যা সর্বজনবিদিত ও সমাদৃত।

কলেজ ভবনের ভিত্তি প্রস্থর স্থাপন করেছেন গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের তৎকালিন বানিজ্য মন্ত্রী এম. আর সিদ্দিকী। প্রথম শিক্ষাবর্ষ উদ্বোধন করেন প্রখ্যাত সাহিত্যিক চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য তৎকালিন শিক্ষামন্ত্রী অধ্যাপক আবুল ফজল এবং প্রথম শ্রেণী কার্যক্রম উদ্বোধন করেন মুক্তিযুদ্ধের সর্বাধিনায়ক এবং তৎকালিন অভ্যমত্মরীণ নৌ পরিবহন ও জাহাজ চলাচল মন্ত্রী জেনারেল এম.এ.জি. ওসমানী। ভৌগলিক অবস্থান এবং উন্নত যাতায়াত ও যোগাযোগ ব্যবস্থার অপূর্ব সমন্বয়ের কারণে অত্র কলেজে পাশ্ববর্তী চট্টগ্রাম শহর, বোয়ালখালী, পটিয়া, বাঁশখালী, চন্দনাইশ ও সাতকানিয়া উপজেলার অনেক ছাত্র-ছাত্রী অধ্যয়ন করে আসছে।

কলেজে উচ্চ মাধ্যমিক পর্যায়ে বিজ্ঞান, মানবিক ও ব্যবসায় শিক্ষা শাখায় মোট ১৯টি বিষয়ে ডিগ্রি পর্যায়ে বি.এ, বি.এস.এস ও বি.বি.এস পাস কোর্সে ৮টি বিষয়ে এবং অনার্স কোর্সে বি.বি.এ (অনার্স) হিসাব বিজ্ঞান ও ব্যবস্থাপনা এবং বি.এ (অনার্স) ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি এই ৩টি বিষয় চালু রয়েছে। এছাড়া প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে উচচ মাধ্যমিক এবং ডিগ্রি পরীক্ষা কেন্দ্রও চালু আছে।

কলেজে খেলার মাঠ, কলেজ জামে মসজিদ, পুকুর ও দীঘি এবং  পর্যাপ্ত অবকাঠামোগত সুবিধা বিদ্যমান।

 

 

মোট ছাত্র-ছাত্রীর সংখ্যা

 

১,৫৫৩ জন